Monday, February 24, 2020

মদনা বাজার মাঠে মুজিব শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ব্যাটমিন্টন টুর্নামেন্ট -২০২০ এর ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত


মদনা মাদক বিরোধী যুবসংঘ ও মদনা টাইগার ক্লাবের উদ্দোগে মদনা বাজার মাঠে মুজিব শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে ব্যাটমিন্টন টুর্নামেন্ট -২০২০ এর ফাইনাল খেলাই মোঃ সফিকুল ইসলাম শফির সভাপতিত্বে, পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইদুর রহমান সাঈদ এর সঞ্চালনায়, প্রধান অতিথি চুয়াডাঙ্গা -২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জননেতা জনাব হাজী মোঃ আলী আজগার টগর মহোদয়, বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ দামুড়হুদা উপজেলা শাখার সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ মাহফুজার রহমান মনুজ, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কেরু & কোং বাংলাদেশ লিঃ এর এ এম ডি জনাব মোঃ শাহাবুদ্দীন, বিশেষ অতিথি পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান জনাব এস.এ.এম জাকির আলম,বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা জনাব মোঃ মাহাবুব হোসেন,বিশেষ অতিথি পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জনাব মোঃ মুন্তাজ হোসেন, বিশেষ অতিথি পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ জিয়াুল হক সহ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের এবং  যুবলীগ ও ছাত্র লীগ এর নেতৃ বৃন্দ উপস্থিতি ছিলেন। খেলার ফলাফল দর্শনা ক্লাব চ্যাম্পিয়ান ও আকুন্দবাড়ীয়া ক্লাব রানারআপ।

Sunday, February 23, 2020

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করলেন  ড. মাহাথির মোহাম্মদ
মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিলেন মাহাথির মোহাম্মদ। সোমবার দেশের রাজার কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি।
পদত্যাগ নিয়ে ব্যাপক গুঞ্জনের মাঝে হঠাৎই এমন ঘোষণা দিলেন মাহাথির। জানান, নতুন সরকার গঠনের সুযোগ করে দিতেই এ সিদ্ধান্ত।
গত শুক্রবার দেশটির ক্ষমতাসীন জোটের প্রেসিডেন্সিয়াল কাউন্সিলের বৈঠকেই শিগগিরই পদত্যাগের বিষয়টি উঠার পর নভেম্বর পর্যন্ত দায়িত্বে থাকার ইঙ্গিত ছিল মাহাথিরের বক্তব্যে। অবশ্য যেকোনো সময় পদত্যাগের ঘোষণা দিতে পারেন, এমনটিও জানিয়েছিলেন।
পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ক্ষমতাগ্রহণের দুই বছরের মাথায় সরে দাঁড়ালেন তিনি। কিয়াদিলান রাকাইয়াত পার্টির সভাপতি আনোয়ার ইব্রাহিমের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন এমন শর্তেই নির্বাচনে লড়েছিলেন মাহাথির।
প্রাইভেট কার থেকে ৩ কেজি গাঁজা ও ২৬০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার

 চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা সড়কের কান্তপুর ব্রীজমোড়ে অবসরপ্রাপ্ত এক পুলিশ সদস্যের সতর্কতায় গাঁজা ফেনসিডিল ভর্তি একটি প্রাইভেটকার জব্দ করেছে আলমডাঙ্গা থানার পুলিশ। এ সময় গাড়িতে থাকা দু’জন পালিয়ে গেলেও প্রাইভেট কার থেকে  ৩ কেজি গাঁজা ও ২৬০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

(২৩-ফেব্রুয়ারী) রোববার রাতে আলমডাঙ্গা উপজেলার কান্তপুর ব্রীজ মোড় বাজার থেকে ওই প্রাইভেট করটি জব্দ করে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, চুয়াডাঙ্গা থেকে আলমডাঙ্গা অভিমুখে যাওয়া ঢাকা মেট্রো-গ ৩৫-৭৮৬৭ নম্বরের একটি প্রাইভেটকার রোববার রাতে কান্তপুর বাজারে অবস্থান করে । এ সময় কান্তপুর বাজারের ব্যবাসয়ী অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য একরামুল হোসেন প্রাইভেট কারে থাকা দু’জন ব্যক্তির আচরণে সন্দেহ হলে তিনি গাড়ির কাছে গিয়ে ওই ব্যক্তিদের কাছে গাড়িতে কি আছে তা দেখতে চান। এ সময় প্রাইভেটের পিছনের আসনে বসা একজন পালিয়ে গেলে ওই ব্যবসায়ী চিৎকার শুরু করেন। বাজারের লোকজন ছুটে আসার আগেই সুযোগবুঝে প্রাইভেটকারের চালকও প্রাইভেটকারটি বন্ধ করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছায়। পরে প্রাইভেট কারের দরজা ভেঙ্গে গাড়ির ভিতর থেকে তিন কেজি গাঁজা ও ২৬০ বোলত ফেনসিডিল উদ্ধার করে। এ সময় প্রাইভেট কারটি আলমডাঙ্গা থানা হেফাজতে নিয়ে যায় পুলিশ।



গাঁজা ও ফেনসিডিল ভর্তি প্রাইভেট কার আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুর রহমান বলেন, চুয়াডাঙ্গা থেকে আলমডাঙ্গা অভিমুখে আসা প্রাইভেট কারটি কান্তপুর ব্রীজমোড়ে ঘোরাঘুরি করছিলো। কান্তপুর ব্রীজ মোড়েরর অবসরপ্রাপ্ত এক পুলিশ সদস্যের প্রাইভেট কারে থাকা লোকজনের আচরণে সন্দেহ হলে তিনি প্রতিরোধ করেন। এ সময় দু’জন পালিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে আলমডাঙ্গা থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মাদকভর্তি প্রাইভেটকারটি জব্দ করে থানা হেফাজতে নেয়। এ ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে আটক করা না গেলেও তাদের ধরতে পুলিশের একাধীক টিম মাঠে নেমেছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা
ফিলিস্তিনিকে হত্যার পর নির্মমভাবে পিষে দিল ইসরায়েলি বুলডোজার
গাজায় এক ফিলিস্তিনের নাগরিককে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। রবিবার সকালে ফিলিস্তিনের গাজা-ইসরায়েল সীমান্তে বোমা পুঁতে রাখার সন্দেহ ফিলিস্তিনের দুই নাগরিকের ওপর গুলি করলে ওই ব্যক্তি নিহত হন। এই ঘটনায় আরেক জন আহত হন। এরপর ওই নিহত ব্যক্তির মরদেহ বুলডোজার দিয়ে পিষে দিতে দেখা যায় এক ভিডিওতে।
ঘটনার ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন ফিলিস্তিনের নাগরিক নিহত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করতে যায়। কিন্তু হঠাৎ করেই ইসরায়েলি সেনারা বুলডোজার ও ট্যাঙ্কার নিয়ে গাজা উপত্যকার ভেতরে ঢুকে পড়ে। এরপর নিহত ওই ব্যক্তির মরদেহ বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিতে থাকে।
ফিলিস্তিনিরা নিহতের মরদেহ উদ্ধার করার চেষ্টা করলেও পারেননি। তবে আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করেন তারা। আর নিহত ব্যক্তির মরদেহ গুঁড়িয়ে দিয়ে বুলডোজারে তুলে নিয়ে চলে যায় ইসরায়েলি সেনারা। এসময় কয়েকজন ফিলিস্তিনের নাগরিককে ঢিল ছুড়তে দেখা যায়।
ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর এক সামরিক মুখপাত্র বলেন, আজ সকালে গাজা-ইসরায়েল সীমান্তে বোমা হামলা ব্যর্থ করে দিয়েছে সেনারা। এরপর সেনাবাহিনী বুলডোজার দিয়ে এক হামলাকরীর মরদেহ উদ্ধার করেছে।
গাজায় ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানায়, দু’জন আহত ব্যক্তিকে খান ইউনিসের ইউরোপীয় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের পায়ে গুলি লেগেছে। গাজার সংগঠন ইসলামিক জিহাদ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, নিহত ব্যক্তিটি তাদের গ্রুপের সদস্য ছিলেন। তার নাম মোহাম্মদ আলি আল-নাঈম।
হামাসের মুখপাত্র ফাওজি বারহৌম বলেন, নিহত ব্যক্তির হাতে কোনো অস্ত্র ছিল না। তাকে হত্যা করে জঘন্য অপরাধ করেছে ইসরায়েলিরা। ফিলিস্তিনের জনগণের বিরুদ্ধে অপরাধের আরো একটি সংখ্যা যুক্ত করেছে দখলদার ইসরায়েলিরা।
বাড়ি থেকে সাড়ে ৭শ’ ফিলিস্তিনি শিশুকে ধরে নিয়ে গেছে ইসরায়েলি বাহিনী
চলতি বছরের দশ মাসে প্রায় ৭শ’ ৪৫ ফিলিস্তিনি শিশুকে গ্রেফতার করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। স্থানীয় একটি বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ খবর প্রকাশিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) এ নিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়।
ইসরায়েলি আটক ও নিপীড়ন থেকে ওই শিশুদের রক্ষা করতে জাতিসংঘসহ অন্য আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোকে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।
প্যালেস্টিনিয়ান প্রিজনার্স সোসাইটি (পিপিএস) তাদের বাৎসরিক প্রতিবেদনটিতে জানায়, গভীর রাতে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ফিলিস্তিনি শিশুদের। ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে গ্রেফতার এই শিশুদের সঙ্গে বিভিন্নভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে।
গ্রেফতার শিশুরা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, যা শিশুদের মৌলিক অধিকার। তাদের মধ্যে অনেককেই পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয় না। এমনকি প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা থেকেও তারা বঞ্চিত।
প্রতিবেদন অনুযায়ী, বর্তমানে ইসরায়েলি কয়েকটি বন্দিশিবিরে প্রায় দুইশ’ শিশু কারাভোগ করছে।
ফিলিস্তিনি তথ্য অনুযায়ী, নারী ও শিশুসহ ৫ হাজার ৭০০ ফিলিস্তিনি ইসরায়েলি বন্দিশিবিরে রয়েছে
শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে আব্দুর রহমান সভাপতি নিলুয়ার হোসেন সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত


আজ বিকাল চারটায় সোহরাওয়াদ্দী স্মরনী বিদ্যাপীঠ  মাঠে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার অন্তর্গত চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার  ০৪ নং শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর ত্রিবার্ষিক সম্মেলন এ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি চুয়াডাঙ্গা ১ আসন থেকে বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা বর্ষীয়ান রাজনীতিক গণ মানুষের নেতা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি চুয়াডাঙ্গা ০২ আসন থেকে বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগার টগর এম পি।

ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন এর শুভ উদ্বোধন  করেন চুয়াডাঙ্গা সদর  উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সভাপতি আব্দুল মান্নান নান্নু।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগ এর নেতৃবৃন্দ,উপজেলা আওয়ামীলীগ এর নেতৃবৃন্দ।
প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখবেন উপজেলা আওয়ামীলীগ এর ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক শাহাদাত হোসেন।
সভাপতিত্ব করেন ০৪ নং শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান  বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান
পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক শওকত আলি বিশ্বাস।

আলোচনা সভা শেষে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে দ্বিতীয় পর্বে উপজেলা আওয়ামিলীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান নান্নুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামিলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি,বিশেষ অতিথি চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামীলীগ এর সহ-সভাপতি হাজী আলী আজগার টগর এম পি। ০৯ টি ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ এর সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকদের  সাথে আলোচনা শেষে শংকরচন্দ্র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান কে পুনরায় সভাপতি ও চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক নিলুয়ার হোসেন কে সাধারন সম্পাদক হিসাবে কমিটি ঘোষনা করেন।
চুয়াডাঙ্গায় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান


চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গায় শহরজুড়ে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হয়েছে। রোববার দুপুরে শহরের শহীদ হাসান চত্বর এলাকায় এ অভিযানের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন। 

‘পরিচ্ছন্ন গ্রাম, পরিচ্ছন্ন শহর’ এ প্রতিপাদ্যে অভিযানের অংশ হিসেবে শহরের বিভিন্ন জায়গার ব্যানার, ফেস্টুন অপসারণ করা হয়। অতিথিরা নিজ হাতে এসব ব্যানার ফেস্টুন অপসারণ করেন। 

এর আগে একটি সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন বক্তব্য রাখেন। এসময় তিনি বলেন, আমাদের নিজেদের গ্রাম, নিজেদের শহর নিজেদেরকেই পরিষ্কার রাখতে হবে। জেলা প্রশাসন কিংবা পৌরসভার দিকে তাকিয়ে না থেকে সবার জায়গা থেকে নিজ উদ্দ্যোগে শহর পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্ব নিতে হবে। তবেই আমরা সুন্দর শহর গড়ে তুলতে পারবো।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরি জিপু, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন ও সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান প্রমুখ।

পরে শহরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও জন সাধারনের মধ্যে শহর-গ্রাম পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে সচেতনতামুলক লিফলেট বিতরণ করা হয়

Saturday, February 22, 2020

সংগঠনকে শক্তিশালী করতে আ’লীগের জেলা-উপজেলায় সম্মেলন শুরু এপ্রিলে
আগামী এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ জেলা, উপজেলাসহ তৃণমূল পর্যায়ের শাখাগুলোর সম্মেলন প্রক্রিয়া। তৃণমূল পর্যায়ে নতুন নেতৃত্বের মাধ্যমে সংগঠনকে গতিশীল করতে এ উদ্যোগ নিয়েছে দলটি।

এর আগে আগামী ৬ মার্চের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ সব শাখার সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিলো। কিন্তু মুজিববর্ষের কর্মসূচির কারণে এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

গত বছরের ২০ ও ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জাতীয় সম্মেলনের আগে কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ সব জেলা-উপজেলাসহ তৃণমূল পর্যায়ের সম্মেলন সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি। অধিকাংশ জেলা ও উপজেলার সম্মেলন অবশিষ্ট রেখেই দলের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনের আগে বিদায়ী কার্যনির্বাহী সংসদের সর্বশেষ সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, জাতীয় সম্মেলনের পরপরই অবশিষ্ট জেলা, উপজেলাসহ তৃণমূল পর্যায়ের সম্মেলন সম্পন্ন করা হবে। সে অনুযায়ী গত ৩ জানুয়ারি দলের নতুন কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টা পরিষদের যৌথসভায় দ্রুত তৃণমূল পর্যায়ের সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত হয়।


এসব জেলা, উপজেলাসহ তৃণমূল পর্যায়ের সম্মেলন আগামী ৬ মার্চের মধ্যে শেষ করার জন্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে জেলা কমিটির কাছে চিঠি পাঠিয়েছিলেন। দলের সাধারণ সম্পাদকের চিঠি পাওয়ার পর সাংগঠনিক কার্যক্রমও শুরু হয়েছিলো। কয়েকটি জেলা-উপজেলায় সম্মেলনের তারিখও নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু আগামী ১৭ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে মুজিববর্ষ। মূলত মুজিববর্ষের কারণেই সম্মেলন প্রক্রিয়া এপ্রিল পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা জানান, সংগঠনকে গতিশীল করতে তৃণমূল পর্যায়ে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব নিয়ে আসার উপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এ কারণেই দ্রুত সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া জাতীয় সম্মেলনের আগে যেসব জেলা-উপজেলায় সম্মেলন হয়েছে এই সময়ের মধ্যে সেগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটিও গঠন করা হবে। তবে এই কার্যক্রম ৬ মার্চের মধ্যে শেষ করার কথা থাকলেও মুজিববর্ষের কারণে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। কারণ জাতীয়ভাবে মুজিববর্ষের কর্মসূচি উদযাপনের পাশাপাশি দেশব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হবে। একই সময়ে মুজিববর্ষ এবং সম্মেলন প্রক্রিয়া, দুটি কর্মসূচি চালাতে সমস্যা হতে পারে। এ কারণে সম্মেলন প্রক্রিয়া এপ্রিল পর্যন্ত পেছানো হয়েছে বলে নেতারা জানান।

আওয়ামী লীগের ৭৮টি সাংগঠনিক জেলার মধ্যে জাতীয় সম্মেলনের আগে ২৯টি জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। আবার এই ২৯টি জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলেও একটিরও পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। এছাড়া জাতীয় সম্মেলনের আগে অর্ধেকেরও কম উপজেলায় সম্মেলন করা সম্ভব হয়েছে। আগামী এপ্রিল থেকে জেলা-উপজেলাসহ তৃণমূল পর্যায়ের সব মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সম্মেলন করা হবে বলেও দলটির নেতারা জানিয়েছেন।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, মার্চে তৃণমূল সম্মেলন হচ্ছে না। এপ্রিল থেকে শুরু করা হবে। মার্চে শুরু হচ্ছে মুজিববর্ষ। এই সময়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে অনেক কর্মসূচি থাকবে। এ কারণেই তৃণমূল পর্যায়ের সম্মেলন প্রক্রিয়া পেছানো হয়েছে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম গণমাধ্যমকে বলেন, মার্চে সম্মেলন করার কথা ছিলো। কিন্তু ওই মাসে মুজিববর্ষের বিভিন্ন কর্মসূচি থাকছে। একসঙ্গে দুটি কর্মসূচি আয়োজন করা সমস্যা হতে পারে। এ কারণেই মার্চে সম্মেলনের বাধ্যবাধকতা না রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।
দামুড়হুদা কার্পাসডাঙ্গা পুলিশের অভিযানে ইয়াবা-গাঁজা ও চোলাই মদ সহ তিনজন আটক


নিজস্ব প্রতিবেদক  :--- দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা ফাঁড়ি পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে  ইয়াবা- গাঁজা ও চোলাই মদ সহ তিনজন কে     আটক করেছেন । গতকাল  শনিবার রাত সাড়ে  ৯ টায় দামুড়হুদা  উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের দূর্গাপুর  ঈদগাঁ সংলগ্ন থেকে কার্পাসডাঙ্গা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ  সদস্যরা  অভিযান চালিয়ে ১৭ পিস ইয়াবা - ৫০ গ্রাম গাঁজা - ১ লিটার চোলাই মদ  ও একটি ফ্রিডম মোটর সাইকেল সহ তিনজন কে আটক করে। আটককৃতরা হলো দামুড়হুদা  উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা পৃর্বপাড়ার সামাদুল হকের ছেলে সাগর আলী (৪০) পীরপুরকুল্লা গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে  খাইরুল বাসার (৩০) ও দর্শনা পৌর সভার ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামের  সোনা মিয়ার ছেলে মন্টু (৩৮) কে আটক করতে সক্ষম হয়।এ ঘটনায় এসআই সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে দামুড়হুদা মডেল থানায় সৌপর্দ সহ মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করেছেন বলে পুলিশ জানান। 



দামুড়হুদার জয়রামপুর থেকে শিশু সন্তানসহ মা দু-দিন ধরে নিখোঁজ

 দামুড়হুদার জয়রামপুর স্টেশনপাড়া থেকে শিশু সন্তানসহ মা দুদিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টার দিকে ৩ বছল বয়সী শিশু সন্তান শিমুলসহ ডালিয়া খাতুন ডলি (২৫) নামের ওই গৃহবধু স্বামীর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় নিখোঁজ গৃহবধুর স্বামী আ. রহিম দামুড়হুদা থানায় জিডি করেছেন। 

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার হাউলী ইউনিয়নের ডুগডুগি গ্রামের আশাদুল হকের মেয়ে ডালিয়া খাতুন ওরফে ডলির সাথে ৭ বছর আগে জয়রামপুর স্টেশনপাড়ার আব্দুর রহিমের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। স্বামী আব্দুর রহিম পেশায় একজন ঝুরিভাজা বিক্রেতা। তিনি ট্রেনের ভেতর ঝুরিভাজা বিক্রি করে জিবিকা নির্বাহ করেন। দুপুরে ঝুরিভাজা বিক্রি করতে বাড়ি থেকে বের হন এবং সন্ধ্যার পর ফিরে আসেন। তাদের সংসারে অন্তরা (৫) ও শিমুল (৩) নামের দুটি সন্তান রয়েছে। অন্যান্য দিনের ন্যায় রহিম গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১ টার দিকে ট্রেনের ভেতর ঝুরিভাজা বিক্রি করতে বাড়ি তেকে বের হয়ে যান। রাতে বাড়ি পিরে দেখেন শিশু সন্তান শিমুল ও স্ত্রী ডলি বাড়িতে নেই। বেশ কিছুক্ষন অপক্ষোর পরও স্ত্রী সন্তান বাড়ি না ফেরায় খোঁজাখুজি শুরু করেন। প্রতিবেশীসহ নিকট আত্মিয়-স্বজনদের বাড়িতেও খোঁজ করেন। কিন্ত কোথাও তাদের খোজ মেলেনি। স্ত্রী-স্তানকে কোথাও খুজে না পেয়ে স্বামী আব্দুর রহিম শেষমেষ গতকাল শুক্রবার দামুড়হুদা মডেল থানায় সাধারণ ডাইরি করেন।

এ দিকে নিখোঁজ ডলির পিতা আশাদুল হক বলেছেন, জামাই আ. রহিম মেয়ে ডলিকে প্রায়ই মারধর করতো। তাদের মধ্যে ঝই-ঝগড়া লেগেই থাকতো। সআমী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা ছিলোনা। রাগ করে মেয়ে কোথাও চলে গেলো না কী তাদের গুম করে দেয়া হলো কিছুই বঝুতে পারছিনা। # #

হামলার পরদিনই জুমার নামাজে, ক্ষমার দৃষ্টান্ত গড়লেন সেই মুয়াজ্জিন
ইংল্যান্ডের রিজেন্টস পার্কের কাছে লন্ডন সেন্ট্রাল মসজিদে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত হয়েছেন তিনি। তারপরও হামলাকারীর ওপর কোনো ক্ষোভ নেই তার। তাকে ক্ষমা করে দৃষ্টান্ত গড়েছেন আহত মুয়াজ্জিন রাফাত মাগলাদ। একই সঙ্গে হামলার শিকার হওয়ার মাত্র একদিন পরেই মসজিদে ফিরে যোগ দিয়েছেন জুমার নামাজেও।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে শহরের রিজেন্ট পার্কের কাছের মসজিদটিতে নামাজরত অবস্থায় হামলার শিকার হন ৭০ বছর বয়সী ওই মুয়াজ্জিন। সঙ্গে সঙ্গে হামলাকারী যুবককে ধরে পুলিশে দেন অন্য মুসল্লিরা। আর আহত মুয়াজ্জিনকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়।
জুমার নামাজের সময় মসজিদে ফিরে এসে মুয়াজ্জিন রাফাত মাগলাদ বলেন, হামলাকারীর প্রতি আমার কোনো ঘৃণা নেই। তার জন্য আমার দুঃখ হচ্ছে।
রাফাত মাগলাদ বলেন, আমার কাছে মনে হয়েছে, কেউ আমাকে ইট দিয়ে আঘাত করেছে। আমি কেবল খেয়াল করলাম, আমার ঘাড় থেকে রক্ত ঝরছে। তারা আমাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। সবকিছুই হঠাৎ করে ঘটেছে।
পিছন থেকে তাকে ছুরিকাঘাত করলে তিনি ফ্লোরে পড়ে যান। হামলায় আহত হওয়ার পরেও কেন তিনি এত তাড়াতাড়ি মসজিদে এসেছেন প্রশ্নে বললেন, শুক্রবারে জুমায় অংশ নেয়া তার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজ।
‘যদি আমি জুমায় না থাকতে পারি, তবে বড় কিছু আমি হারিয়ে ফেলবো। মুসলমান হিসেবে এটা আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’
তবে এটাকে সন্ত্রাসী হামলা বলে বিবেচনা করছে না স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড। আর সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান।

Friday, February 21, 2020

দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গায় মহান শহীদও আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালিত


  

নিজস্ব প্রতিবেদক :---সারা দেশের ন্যায় যথাযথ মর্যাদায় দামৃড়হুদার  কার্পাসডাঙ্গায় মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল ৭ টায় কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ  দলীয় কার্যলয়ে জাতীয়, দলীয় ও শোক পতাকা উত্তোলন করেন।

উত্তোলনের পর র্যালী সহকারে কার্পাসডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজের শহীদ মিনারে পুষ্প্য অর্পণ করে। পরে  দলীয় কার্যলয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউনিয়ন আ,লীগের সভাপতি শফিকউর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নজির আহমেদের সঞ্চালনায়  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আ,লীগের  সদস্য ইউপি চেয়ারম্যান  মো.খলিলুর রহমান ভুট্র। এ সময় উপস্হিত ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা আ,লীগের সহসভাপতি সহিদুল হক, আ,লীগ নেতা আব্দুল কাদের বিশ্বাস, আব্দুস সালাম বিশ্বাস, মখলেসুর রহমান রিপন,আলাউদ্দিন মাষ্টার, রেজাউল করিম মিন্টু আব্দুল জলিল, ইলিয়াস হোসেন, লুৎফর রহমান, শওকত আলী, হযরত আলী,  সহিদুল সর্দার
কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতি রফিকুল ইসলাম এপি, আব্দুল মজিদ,খুরশীদ আলম, যুগ্ম সম্পাদক শরিফ রতন,     সাংগাঠনিক সম্পাদক  আতিকুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক বখতিয়ার বকুল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মেহেদি মিলন যুবলীগ নেতা লিটন, জাফর,আক্তার, তুহিন, ফরহাদ, সাদ্দাম, ফারুক, ওমিদুল কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন  কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল বিশ্বাস মিঠু, সহসভাপতি আশুব্বর রহমান বাবু, সাংগাঠনিক সম্পাদক বিল্লাল হোসেন ও জহির উদ্দিন
কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি  কামরুজ্জামান রানা, সাধারণ সম্পাদক সানাউল কবির শিরিন ছাত্রলীগ নেতা , সাজ্জাদ, মানিক,প্রিন্স সাজ্জাদ,হাসিব,  লিমন, রাসেল।এছাড়াও কার্পাসডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজ, ইসলামীয়া ফাযিল ডিগ্রী মাদ্রাসা, হাদিকাতুল উলুম বালিকা মাদ্রাসা, হাইস্কুল, প্রাইমারী স্কুল, কোমরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ সকল সরকারি / বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দিনটি যথাযথ মর্যাদায় পালন করে
 




Thursday, February 20, 2020

চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গায় ঘরে রহস্যজনক আগুন
চুয়াডাঙ্গা,  আলমডাঙ্গার পাইকপাড়া গ্রামের জাহিদ হোসেনের বাড়ির একটি ঘরে আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটেছে। ১৯ ফেব্রুয়ারী বুধবার দিনগত রাতে আগুনের ঘটনা ঘটে। ঘরটির ভেতরের খাটের বিছানায় রাখা কাথা-কাপড় পুড়ে গেছে।
জাহিদ হোসেন আগুন লাগানোর ঘটনায় ব্যবসায়িক ফ্যাসাদে জড়িয়ে পড়া তার পূর্ব শত্রু একই গ্রামের হাফিজুর রহমানকে দোষ দিচ্ছেন। তবে প্রতিবেশীরা আগুনের ঘটনাটি রহস্যজনক হিসেবে দেখছেন বলে জানা গেছে।
জানা যায়, আইলহাঁস ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের মৃত আমির মন্ডলের ছেলে হাফিজুর রহমানের সাথে ২০০৮ সালের দিকে ব্যবসা শুরু করেন একই গ্রামের মৃত পচা মালিথার ছেলে জাহিদ হোসেন। ব্যবসায়ে পূঁজি বানাতে তারা ব্রাক ব্যাংক থেকে ৪ লাখ টাকা লোন নেন। টাকা তোলেন হাফিজুর রহমান। এতে গ্যারান্টার হন জাহিদ হোসেন। এক সময় তাদের ব্যবসায় ধস নামলে ব্যাংকের টাকা তারা শোধ করতে পারেন না। ফলে ব্যাংক তাদের নামে ঢাকা জজ কোর্টে মামলা করে দেয়। ওই মামলায় হাফিজুর রহমান ঢাকায় গিয়ে জামিন নিলেও জাহিদকে জেল হাজতে যেতে হয়।চ

জানা যায়, জেল থেকে বেরিয়ে জাহিদ হেসেন ব্যাংকের পুরো ৪ লাখ টাকা হাফিজুর রহমানের কাছে দাবি করেন। কিন্ত হাফিজুর রহমান ওই টাকা দিতে রাজি হন না। তার বর্ননায় আদালত থেকে জাহিদকে জামিন করে বের করতে সাড়ে ৪ লাখ টাকা খরচ হয়ে যায়। এই টাকা দেওয়া না দেওয়াকে কেন্দ্র করে দু‘জনের ভেতরে তীক্ত সম্পর্কের জন্ম নেয়। চলমান তীক্ত সম্পর্কের ভেতরে জাহিদ হোসেনের ঘরে আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটে।
হাফিজুর রহমান জানান, আমি দীর্ঘদিন গ্রামের বাড়িতে থাকি না। শত্রæতামূলকভাবে আমাকে এবং আমার পরিবারকে ফাঁসাতে জাহিদ হোসেন নিজে তার ঘরে আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটিয়েছে। তিনি প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার কামনা করেন।
এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আশিকুর রহমান জানান, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আগুন লাগানোর ঘটনাটি রহস্যজনক মনে হয়েছে। তিনি বলেন, বাইরের কেউ আগুন দিলে ঘরের বেড়া পর্যাপ্ত পুড়ে যাওয়ার কথা। কিন্ত বেড়া পুড়েছে অল্প বেশী পুড়েছে বিছানায় থাকা কাথা। তবে ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

দর্শনা অংকুর আদর্শ স্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত
received_2450627388584968

 দর্শনা অংকুর আদর্শ স্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছেআজ বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক  দামুড়হুদা উপজেলা আ'লীগের সভাপতি ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান মনজু'র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি থেকে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার  উদ্বোধন করেন দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মনসুর বাবু অনুষ্ঠানের শুরুতে  জাতীয় সঙ্গীততালে তালে  জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়  এরপর অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেনশিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ডলেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা করাও গুরুত্বপূর্ণকারণ খেলাধুলা ছেলে- মেয়েদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশ ঘটায়এ সময় উপস্থিত ছিলেন অংকুর আদর্শ বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ হাজী হাফিজুর রহমান,বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অন্যতম সদস্যদের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা রুস্তম আলীজাহাঙ্গীর আলমহাজী খালেক উজ্জামানরবিউল আলম বাবুযুবলীগ নেতা- সাইফুল ইসলাম হুকুম আলী,শিক্ষক খবির উদ্দীনছাত্রলীগ নেতা-রায়হান হোসেনসহ অনেকে