Saturday, January 18, 2020

অবৈধ দখলদারদের কবলে দর্শনা-মুজিবনগর সড়কঃ প্রশাসনের ভ্রুক্ষেপ নেই, এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া



দামুড়হুদা প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার ব্যস্ততম সড়ক গুলো মধ্যে দর্শনা থেকে মুজিবনগর সড়কটি অন্যতম। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সহ জাতীয় চারনেতা স্মৃতি বিজড়িত এই সড়কটি দীর্ঘ দিন থেকেই অবৈধ দখলদারদের কবলে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসার পর ব্যপক উন্নয়নের ফলে মুজিবনগর হয়ে উঠে একটি পর্যটক এলাকা।পিকনিক, শিক্ষা সফর সহ প্রতিদিন হাজার হাজার দর্শনার্থীরা  আসেন মুজিবনগর ভ্রমনে। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য ব্যস্ততম সড়কে পরিণত হয়েছে দর্শনা- মুজিবনগর সড়ক। বাস, মিনিবাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেট কার সহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচলের ফলে একটি ব্যস্ততম সড়কে পরিণত হয় দর্শনা- মুজিবনগর সড়ক। অবৈধ দখলদারদের কবলে সড়কটিতে লেগেই থাকে যানজট, প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট বড় সড়ক দুর্ঘটনা। তাছাড়া রাস্তার দুই পাশে আছে প্রথমিক বিদ্যালয়, হাই স্কুল, কলেজ সহ অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। পথচারী ছাড়াও বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা প্রাণ হারাচ্ছে। অবৈধ দখলদার উচ্ছ্বেদ না হওয়ায় এলাকাবাসীদের মনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হচ্ছে। প্রশাসন কেন নিরব? যেখানে সারাদেশে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা হচ্ছে; রাস্তা প্রসস্থ কারা হচ্ছে, কিন্তু দর্শনা মুজিবনগর সড়কে প্রশাসনের কোন ভ্রুক্ষেপ নেই। এলাকায় গুন্জন আছে উপজেলা প্রশাসনের ও ভূমি অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীর সহযোগীতায় মাসোহারা ও মোটা অংকের টাকার চুক্তিতে সড়কের দুই পাশে গড়ে উঠেছে পাকাঁ ইমারত, দোকান ও বসত বাড়ি। উক্ত সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কারণেই দর্শনা- মুজিবনগর সড়কটি দীর্ঘ দিন ধরে থাকছে অবৈধ দখলদার কবলে। অবৈধ ভাবে সরকারি জায়গা দখল করে গড়ে তুলা পাকা বাড়ি-ঘর, দোকান সহ সীমানা প্রাচীরের কারনে দিন দিন রাস্তা ছোট হয়ে আসছে। যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন হচ্ছে। 
দর্শনা-মুজিবনগর সড়কে দীর্ঘদিন থেকে সবচেয়ে বেশী দখলদারদের কবলে থাকা এলাকা গুলো, দর্শনা পুরাতন বাজার, ঘুঘুডাঙ্গা, রামনগর, গলাইদড়ি ব্রীজের দুইপাশ, প্রতাপপুর, চন্ডিপুর, কুড়ুলগাছি, ধান্যঘরা, দূর্গাপুর, কার্পাসডাঙ্গা ও আট কবর এলাক।
গলাইদড়ি ব্রীজের দুই পাশসহ অবৈধ দখলদাররা গড়ে তুলেছে পাকা ঘর ও দোকান। কার্পাসডাঙ্গা বাজারে বন্দবস্ত বা ডিসিআর নামক চুক্তির মাধ্যমে সড়কের জমি পৈত্রিক সম্পদে পরিণত হয়েছে। অবৈধ দখলদারা কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে, কোন শক্তির বলে তারা সরকারী জায়গা দখল করে পাকা ইমারত নির্মান করেছে। 
চুয়াডাঙ্গা জেলার জেলা প্রশাসক সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষর নিকট এলাকাবাসীর দাবী, কবে এসব অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ হবে। কবে অবৈধ দখল মুক্ত সড়ক পাবে এলাকার মানুষ।

0 comments: