Saturday, February 8, 2020

নিজের দুই শিশু সন্তানের মাথায় হাত রেখে মাদক ব্যবসা পরিত্যাগের শপথ নিয়েছেন রিপন।

নিজের দুই শিশু সন্তানের মাথায় হাত রেখে মাদক ব্যবসা পরিত্যাগের শপথ নিয়েছেন চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দক্ষিণ চাঁদপুর গ্রামের চিহ্নিত মাদকব্যবসায়ী রিপন আলী (৩৭)। শনিবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এসে এসপি জাহিদুল ইসলামের সামনে এ শপথ করেন তিনি। রিপন আলী দক্ষিণ চাঁদপুর গ্রামের মৃত মান্দার শাহের ছেলে।
পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম জানান, রিপন আলী স্বপরিবারে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে উপস্থিত হন। এসময় তিনি নিজের দুই শিশু সন্তানের মাথায় হাত রেখে মাদক ব্যবসা পরিত্যাগের শপথ নেন। তার বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় তিনটি মাদক মামলাসহ ছয়টি মামলা রয়েছে। তিনি স্বাভাবিক জীবনে ফেরার সুযোগ চেয়ে এ শপথ করেছেন।


অদ্য ০৮.০২.২০২০ খ্রিঃ তারিখ দর্শনা দক্ষিন-চাঁদপুর গ্রামস্থ মাদক ব্যবসায়ী মোঃ রিপন আলী (৩৭), পিতা-মৃত মান্দার শাহ্ তার স্ত্রী ও দুই সন্তান সহ পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা মহোদয়ের কার্যালয়ে হাজির হয়ে তার দুই শিশু সন্তানের মাথায় হাত রেখে পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা মহোদয়ের সামনে শপথ করেন যে, সে আর কোন দিন মাদক ব্যবসা করবে না। মাদক ব্যবসায়ী রিপন এর বিরুদ্ধে দামুড়হদা মডেল থানায় মাদক মামলা-০৩ টি, বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলা-০২টি, অন্যান্য মামলা-০১টি, মোট-০৬ টি মামলা রয়েছে। 

জেলা পুলিশ চুয়াডাঙ্গা মাদক ব্যবসায়ীদের শুধু গ্রেফতার বা সাজা নিশ্চিত করতে চায় না। ক্ষেত্র বিশেষে প্রেক্ষাপট বিবেচনায় তাকে নতুন জীবনে পদার্পণ স্বাভাবিক পারিবারিক জীবনে প্রবেশ ও পূর্নবাসনের কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। অত্র জেলা সীমান্তবর্তী হওয়ায় বিপুল সংখ্যক জনগোষ্ঠী পারিবারিক ভাবেই মাদক ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত। অনেকেই এই কর্মের মাধ্যমে অর্থ বিত্ত, বৈভব ও নতুন দালান কোঠার মালিক হয়েছে। অবৈধ সম্পদের স্থায়ীত্বকাল বেশী দিন হয় না। সরকারি আইন মোতাবেক মামলা দায়ের করতঃ উক্ত সম্পত্তি সরকারি মালিকানায় নেওয়ার বিধান রয়েছে। সাধারন ভাবে জেলা পুলিশ এই জনপদের সকল সম্মানিত নাগরিককে সচেতন করার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। কাজেই এই সুযোগে যে কোন ব্যক্তি বা পরিবার আত্মসমার্পন সুযোগ নিতে পারে। চুয়াডাঙ্গা জেলাবাসীর মঙ্গল কামনায়, জেলা পুলিশ, চুয়াডাঙ্গা।

0 comments: