Saturday, February 8, 2020

নারী সহকর্মীকে হত্যা করে পুলিশের আত্মহত্যা

ভারতের দিল্লির রোহিণীতে মহিলা সাব-ইনস্পেক্টর প্রীতি অহলাওয়াতকে (২৬) হত্যা করে তাঁরই ব্যাচমেট দীপাংশু রাঠীর আত্মহত্যা করেছেন।
ভারতীয় পুলিশ বলছে, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কাজ সেরে বাড়ি ফিরছিলেন প্রীতি। মেট্রো থেকে নেমে বাড়ি ফেরার পথেই তাকে লক্ষ্য করে দীপাংশু পর পর ৩টি গুলি ছোড়েন। তার একটি গুলি প্রীতির মাথায় লাগে। আর তাতেই তার মৃত্যু হয়। এমন ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজধানীতে।
এক শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকে ৩টি কার্তুজের খোল মিলেছে। এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
পূর্ব দিল্লির প্রতাপগঞ্জ শিল্পাঞ্চল থানায় কর্মরত ছিলেন প্রীতি। তিনি আদতে হরিয়ানার সোনিপতের বাসিন্দা। কাজের সূত্রে রোহিণীতেই একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতেন তিনি। প্রীতি এবং দীপাংশু দু’জনের ২০১৮-র ব্যাচের পুলিশ অফিসার।
পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রীতির প্রেমে পড়েছিলেন দীপাংশু। তাকে বিয়ের প্রস্তাবও দেন তিনি। কিন্তু প্রীতি এই সম্পর্কে আপত্তি জানান। বিয়েতেও রাজি হননি বলে দাবি পুলিশের। সেই আক্রোশেই প্রীতি খুন হয়েছেন বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা।

0 comments: