Sunday, March 8, 2020

দামুড়হুদায় ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ২ এবং মেম্বার পদে ২ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার

দামুড়হুদা ব্যুরো : দামুড়হুদার নতিপোতা ও নাটুদহ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ২ এবং মেম্বার পদে ২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। গতকাল রোববার ছিলো মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। গতকাল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিনে নাটুদহ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আব্দুল মালেত এবং রেজাউল হক মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নির্বাচন থেকে সরে দাড়িয়েছেন। তারা দুজনই আওয়ামী লীগের দলীয় সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। ফলে নাটুদহ ইউনিয়নে বর্তমানে চেয়ারম্যান পদে ৮ জন প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীর মধ্যে নির্বাচনী মাঠে থেকে গেলেন ৬ জন। এ ছাড়া নাটুদহ ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১ নং ওয়ার্ড থেকে মনোনয়নপত্র দাখিলকারী মোছা: দেলোয়ারা খাতুন এবং নতিপোতা ইউনিয়নের ৪ নং সাধারণ ওয়ার্ড থেকে মনোনয়নপত্র দাখিলকারী নতিপোতা গ্রামের রবগুল মালিথার ছেলে হাশেম আলী পারিবারিক কারণ দেখিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের মধ্যদিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। 
নতিপোতা ইউনিয়নে যে ৫ জন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন তারা হলেন-আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নতিপোতা ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান নতিপোতার কৃতিসন্তান আজিজুল হক আজিজ, বিএনপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী দামুড়হুদা থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি হোগলডাঙ্গার কৃতি সন্তান মনিরুজ্জামান মনির এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনিত হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী নতিপোতা গ্রামের মোশারফ হোসেন। এ ছাড়া সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা হোগলডাঙ্গার কৃতি সন্তান হাজি রবিউল হাসান এবং আ.লীগ নেতা ইউপি সদস্য কালিয়াবকরি গ্রামের কৃতি সন্তান ইয়ামিন আলী।
  অপর দিকে নাটুদহ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে যে ৬ জন প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন তারা হলেন-আওয়ামী লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী চারুলিয়া গ্রামের কৃতি সন্তান বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফি, বিএনপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী নাটুদহ ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জগন্নাথপুর গ্রামের কৃতি সন্তান অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আমির হোসেন মাস্টার। এ ছাড়া সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা জগন্নাথপুর গ্রামের গ্রামের কৃতি সন্তান ইয়াচনবী, আওয়ামী লীগ নেতা চন্দ্রবাস গ্রামের কৃতি সন্তান আব্দুল হালিম, একই গ্রামের কৃতি সন্তান বিএনপি নেতা ফজলুল হক এবং চারুলিয়া গ্রামের কৃতি সন্তান আমিনুল ইসলাম। 

0 comments: