Wednesday, April 29, 2020

কোয়ারেন্টাইনের জন্য মসজিদ ছেড়ে দিলেন ভারতের মুসলিমরা!

প্রাণঘাতী করোনার বিরুদ্ধে লড়ছে ভারত। করোনা প্রতিরোধে শামিল হয়েছে সেখানকার মুসলিমরাও। লক ডাউনের কারণে মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়া বন্ধ। তাই পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রের পুনে শহরে একটি মসজিদকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রূপান্তর করা হয়েছে। করোনা রোগীদের চিকিৎসায় সেন্টারটি এখন পুরোপুরি প্রস্তুত।
দেশটির সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, কোয়ারেন্টিন সেন্টারে রূপান্তরিত মসজিদটির অবস্থান আজম ক্যাম্পাসে। মহারাষ্ট্র কসমোপলিটন অ্যান্ড এডুকেশনাল সোসাইটির পরিচালনায় ওই ক্যাম্পাসে ১৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আর ২০ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে।
ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস আরও জানিয়েছে, ক্যাম্পাসের মসজিদের দোতলায় বিশাল হলঘরে কোয়ারেন্টিন সেন্টার তৈরি করা হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত ৮০ জন সেখানে থাকতে পারবেন। মসজিদের নয় হাজার বর্গফুটের এই হল তারা ব্যবহার করতে চান করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে।
এ বিষয়ে মহারাষ্ট্র কসমোপলিটান অ্যান্ড এডুকেশনাল সোসাইটির চেয়ারম্যান পি এ ইনামদার বলেন, কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে আমরা এখানে করোনা রোগীদের জন্য সেন্টারের ব্যবস্থা করেছি। আমরা রাজ্য সরকারকে যেটুকু পারি সাহায্য করতে চাই। মসজিদের ভিতরে ফ্যান, লাইট, টয়লেট, বেড সবই আছে। তাই করোনার রোগীদের সেখানে রাখতে কোনও অসুবিধা নেই।
ডয়চে ভেলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি ভারতে ইসলাম বিদ্বেষ নিয়ে প্রচুর আলোচনা হচ্ছে। তাবলীগের সম্মেলন থেকে করোনা ছড়ানোর পর সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে নিশানা করে সামাজিক মাধ্যমে প্রচারের ঝড় তুলেছে একাংশ। এমন পরিস্থিতিতে পুনের মসজিদ একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করলো, যা দেখে উৎসাহিত হতে পারে অন্য মন্দির, মসজিদ, গির্জাগুলো। উল্লেখ্য, সম্প্রতি তাবলীগ সদস্যরা প্লাজমার জন্য রক্ত দিয়েও আলোচনায় এসেছেন।
এ বিষয়ে মুসলিম কোঅপারেটিভ ব্যাংকের ডিরেক্টর এস এম ইকবাল বলছেন, ‘এটা নিঃসন্দেহে ভালো প্রয়াস। ওই চত্বরে একটি ইউনানি হাসপাতালও আছে, সেখানেও করোনা রোগীদের রাখা যেতে পারে। হাসপাতালে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা আছে।

0 comments: