Sunday, May 3, 2020

করোনার মধ্যেই প্রাথমিকসহ সকলকে সুখবর দিলেন শিক্ষামন্ত্রী

করোনাভাইরাসের এই মহামারিতে শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে ফোন করে যাতে শিক্ষকদের সহযোগিতা নিতে পারেন, সেই ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে সরকার। ৩৩৩ হটলাইন নম্বরের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে এই সেবা দিতে কাজ চলছে বলে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানিয়েছেন।
আইসিটি মন্ত্রণালয় ও এটুআইয়ের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আশা করি, সহসাই কাজটি শুরু করে দিতে পারব, অবশ্যই এটা টোল ফ্রি হবে।
করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে থাকায় গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। এই ভাইরাসের সংক্রমণ না কমলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি আরও বাড়বে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান টানা বন্ধ থাকায় পাঠদানের ধারাবাহিকতা রাখতে গত ২৯ মার্চ থেকে মাধ্যমিকের এবং ৭ এপ্রিল থেকে প্রাথমিকের ক্লাস সংসদ টিভিতে দেখানো শুরু হয়েছে।
এই ক্লাস দেখে শিক্ষার্থীদের বাড়ির কাজ করে স্কুল খোলার পর তা সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের কাছে জমা দিতে হবে। এই বাড়ির কাজের উপর প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক মূল্যায়নের অংশ হিসেবে বিবেচিত হবে।
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক বলেন, শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের ফোন করে কথা বলার সুযোগ পেলে যেসব বিষয় তারা বুঝতে পারছে না সেগুলো বুঝে নিতে পারবে।
আর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বলেন, প্রাথমিকের ৩০-৪০ শতাংশ শিক্ষার্থী টিভি ক্লাসের বাইরে রয়েছে। তাদের জন্য এটুআইয়ের সহযোগিতায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং আইসিটি মন্ত্রণালয় মিলে কল করে শিক্ষকদের সহযোগিতা নেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মোবাইল ফোনে কোনো খরচ ছাড়াই তারা শিক্ষকদের সঙ্গে যুক্ত হতে পারবে, সেই প্ল্যাটফর্ম করা হচ্ছে। শিশুরা ফোন করে শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলতে পারবে, বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করে জানতে পারবে।
আইসিটি বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, এমন হতে পারে ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে প্রথম পাঁচ মিনিট কোনো টাকা ছাড়াই শিক্ষার্থীরা কথা বলতে পারবে। আরও বেশি সময় ধরে কেউ শিক্ষকের সহায়তা নিতে চাইলে প্রতি মিনিটের জন্য নির্ধারিত ফি কাটা হবে। কারণ অনেক সময় নিয়ে কথা বলার সুযোগ থাকলে বহু সংখ্যক শিক্ষার্থী এই সেবা নিতে পারবে না। আমরা চাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের মধ্যে প্রকৃতপক্ষেই যাদের শিক্ষকদের সহায়তা প্রয়োজন, তারা যেন এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে উপকৃত হয়।

0 comments: